মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

উপজেলা প্রশাসনের পটভূমি

 দৌলতপুর উপজেলার পটভূমিঃ মানিকগঞ্জ জেলা একটি উপজেলার নাম হচ্ছে দৌলতপুর। দৌলতপুর উপজেলার পরিচিত মুখ  সবার কাছে। তবে সকল জেলার অধিবাসীগণ মনে করেন দৌলতপুর উপজেলা মনে হয় বাজা-বাদশাহদের বসবাস কিংবা প্রচুর ধন-দৌলত ছিল বলেই ধনদৌলতের নাম অনুসারেই দৌলতপুর উপজেলা নাম করণ করা হয়েছে। আসলে ধনদৌলতের নাম অনুসারেই দৌলতপুর উপজেলা নামকতরণ করা হয়েছে । আসলে ধন-দৌলত বলতে এখানে কিছুই ছিল না। আছে শুধু যোগাযোগ বিহীণ সড়ক ও নিম্নচর অঞ্চল। সকল কথার অবসান ঘটিয়ে দৌলতপুর উপজেলার নামকরণ ও পটভূমি কি জানা যাক।

মূলতঃ  দৌলতপুর, রামচন্দ্রপুর মৌজাধীন একটি গ্রাম। এই দৌলতপুর মৌজাধীন একটি গ্রাম । এই দৌলতপুর গ্রামের পূব নাম ছিল গো-বর্ধনপুর, গিরি গো-বর্ধন  নামে  হিন্দদের একটি বড়মূতি পূবে এখানে প্রতিষ্ঠিত ছিল। ঐ দেবতার নামানুসারেই এই গ্রামের নাম-গো-বর্ধনপুর ছিল। কাল্ক্রমে উক্ত দেবমূতির নদীগভে বিলীণ হয়ে যাওয়ায় পরবতী মোঘল আমলে দৌলত শাহ নামে একজন সূফী সাধক এই গ্রামের এক বটতলায় আস্তানা করেন। ঐ সময় বহু বিশিষ্ট মুসলমানগণ তার শিষ্যত্ব গ্রহণ করে। জেলা জরিপ সময়ে এলাকার বিশিষ্ট মুসলমানগণ তার শিষ্যত্ব গ্রহণ করেন। জেলা জরিপ সময়ে এলাকার বিশিষ্ট শিষ্যদের প্রচেষ্টায় গো-বর্ধনপুর গ্রামের নাম পরিবতন করে দৌলত শাহ সাধকের নামানুসারে দৌলতপুর নামকরণ করা হয়। এই উপজেলা পূবে ঘিওর উপজেলার অংশ বিশেষ ছিল। ১৯১৯ সালে দৌলতপুর গ্রামে দৌলতপুর থানা প্রতিষ্ঠিত হয় এবং আয়তন এই উপজেলা মানিকগঞ্জ জেলার তৃতীয় বৃহত্তম উপজেলা। 

ভৌগলিক অবস্থান ঃ দৌলতপুর উপজেলা উত্তরে টাংগাইল জেলার নাগরপুর উপজেলা ও সিরাজগঞ্জ জেলার চৌহালী উপজেলা। দক্ষিণে ঘিওর এবং শিবালয় উপজেলা। পূবে সাটুরিয়া উপজেলা এবং পশ্চিমে পাবনা জেলার বেড়া উপজেলা। এই উপজেলার পশ্চিম অংশ দিয়ে বৃহত্তম যমুনা নদী প্রবাহিত,দৌলতপুর উপজেলা আয়তন ২১৬.২৪ বগকিলোমিটার,৮৩.৪৯ বগমাইল,জনসংখ্যা পূরুষ ৭৮,৮০০জন,মহিলা-৭৮০৬০জন,ঘনত্-৭২৫জন,নিবাচনী এলাকা মানিকগঞ্জ-০১,শিবালয়,ঘিওর,দৌলতপুর উপজেলা থানা/ইউনিয়ন ৩৩০০০.৮টি,মৌজা-১৭২টি,সরকারী হাসপাতাল-১টি স্বাস্থ্য কেন্দ্র/ক্লিনিক-৫টি,পোষ্ট অফিস-১৩,নদ-নদী,৩টি (যমুনা,কালীগঙ্গা,ধলেশ্বর),